ভারতে সক্রিয় করোনা রোগীর সংখ্যাকে টপকে গেল সুস্থতার সংখ্যা

83

ভারতে প্রথমবারের মত সক্রিয় করোনা রোগীদের সংখ্যাকে টপকে গিয়েছে সুস্থতার সংখ্যা। ফলে দেশটিতে চলমান ভয়াবহ করোনা পরিস্থিতির মধ্যে কিছুটা হলেও স্বস্তি ফিরে এসেছে।

ভারতের কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের তথ্যানুযায়ী, বর্তমানে দেশটিতে সক্রিয় করোনা রোগীর সংখ্যা মোট ১ লাখ ৩৩ হাজার ৫২৯ জন। আর সুস্থ হয়ে ওঠা লোকের সংখ্যা ১ লাখ ৩৫ হাজার ২০৬ জন।

দেশটিতে গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে ৯ হাজার ৯৮৫ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। আর মারা গেছেন আরো ২৭৯ জন। ফলে দেশটিতে করোনায় মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ২ লাখ ৭৬ হাজার ৫৮৩ জনে। আর মোট মৃত্যু হয়েছে ৭ হাজার ৭৪৫ জনের।

ভারতে সবচেয়ে বেশি করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ঘটেছে মহারাষ্ট্র রাজ্যে। তবে ওই রাজ্যে এখনও গোষ্ঠী সংক্রমণ ঘটেনি বলে জানা গেছে।

মঙ্গলবার মহারাষ্ট্রের স্বাস্থ্যমন্ত্রী রাজেশ টোপ সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি’কে জানিয়েছেন, মহারাষ্ট্রে এখনো কোনও গোষ্ঠী সংক্রমণের প্রমাণ মেলেনি। তবে যে চীন থেকে করোনার প্রাদুর্ভাব দেখা গেছে সেখানে আক্রান্ত ৮৪ হাজারের এর কিছু বেশি মানুষ, আর ভারতের করোনা হটস্পট মহারাষ্ট্রে আক্রান্তের সংখ্যা মোট ৯০ হাজার ৭৮৭ জন।

পরিসংখ্যান বলছে, করোনার উৎপত্তিস্থল উহানে করোনাভাইরাসে মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৫০ হাজার ৩৩৩, যার মধ্যে ৩ হাজার ৮৬৯ জন রোগীর মৃত্যু হয়েছে। আর এদিকে মুম্বাইয়ে এখন পর্যন্ত এই মহামারিতে আক্রান্ত হয়েছে মোট ৫১ হাজার ১০০ জন। অর্থাৎ সংক্রমণের বিচারে উহানকেও ছাড়িয়ে গেছে মুম্বাই।

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, মূলত এশিয়ার বৃহত্তম বস্তি ধারাভিতে কোভিড- ১৯ ভাইরাস ছড়িয়ে পড়ায় দ্রুতহারে সংক্রমণ বেড়েছে।